আজ : ১২:৩৫, জুন ২০ , ২০১৯, ৫ আষাঢ়, ১৪২৬
শিরোনাম :

গোলানকে ইসরায়েলি ভূখণ্ড হিসেবে স্বীকৃতির সময় এসেছে: ট্রাম্প


আপডেট:০৮:২৪, মার্চ ২২ , ২০১৯
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অধিকৃত গোলান মালভূমিতে ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতি দেওয়ার সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গোলান মালভূমি প্রশ্নে কয়েক দশকের মার্কিন নীতি থেকে সরে এসে এমন কথা বললেন ট্রাম্প।

১৯৬৭ সালে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের সময় সিরিয়ার কাছ থেকে গোলান মালভূমির দখল নেয় ইসরায়েল। ১৯৮১ সালে মালভূমিটিকে ইসরায়েল নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করে নেয়। গোলানে নিজেদের শাসন ও আইন বলবৎ করে দেশটি। তবে ইসরায়েলের এ পদক্ষেপকে স্বীকৃতি দেয়নি আন্তর্জাতিক বিশ্ব। তবে দীর্ঘদিনের মার্কিন নীতি থেকে সরে এসে গোলান মালভূমি প্রশ্নে ভিন্ন অবস্থান প্রকাশ করলেন ট্রাম্প।

এক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প দাবি করেন, ‘ইসরায়েল রাষ্ট্র ও আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার জন্য গোলান মালভূমির অত্যন্ত কৌশলগত ও নিরাপত্তা গুরুত্ব রয়েছে।’ গোলান মালভূমিতে ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতি দেওয়ার এখনই সময় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সিরিয়া এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য না করলেও ট্রাম্পের টুইটকে স্বাগত জানিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ইরান যখন ইসরায়েলকে ধ্বংস করার জন্য সিরিয়াকে ব্যবহার করতে চাইছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাহসিকতার সঙ্গে গোলান মালভূমিতে ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছেন।’ গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশন্স এর প্রেসিডেন্ট এবং মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সাবেক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা রিচার্ড হাস বলেছেন তিনি ট্রাম্পের বক্তব্যের ব্যাপারে ‘দৃঢ়ভাবে অমত’ পোষণ করছেন। তার মতে, এভাবে ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দেওয়া হলে তাতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব লঙ্ঘিত হবে। ওই প্রস্তাবে, যুদ্ধের মাধ্যমে ভূখণ্ড দখলের বিষয়টি নিষিদ্ধ করা আছে।

এর আগে, ২০১৭ সালে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছিলেন ট্রাম্প। ইসরায়েলস্থ মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে সরিয়ে জেরুজালেমে নিয়ে যাওয়ারও নির্দেশ দেন তিনি। এর বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনসহ বিশ্বজুড়ে তুমুল নিন্দা ও প্রতিবাদ শুরু হয়। ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত কার্যকরকে আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে মোকাবিলা করতে নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব তুলেছিল আরব দেশগুলো। পরিষদের ১৪ সদস্য প্রস্তাবের পক্ষে থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র এতে ভেটো দেয়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি উপেক্ষা করে সাধারণ পরিষদে ১২৮-৯ ভোটে প্রস্তাবটি পাস হয়।



সাম্প্রতিক খবর

জাঁকজমক অনুষ্টানে সম্পন্ন হল

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ঃ বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে বৃটেনের শীর্ষ ব্যাবসায়ী, পেশাজীবী,বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সরব উপস্থিতিতে গত ১৮ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক জাঁকজমক ভাবে অনুষ্টিত হল সংগঠনের ঈদ প্রীতি সমাবেশ। এসেক্সের ‘ওয়েলথাম অ্যাবি’র ঐতিহ্যবাহী ম্যারিয়েট হোটেলের হল রুমটি প্রবাসী সিলেটবাসীর মিলনমেলায় পরিনত হয়েছিলো । বিশিষ্ট কমিউনিটি

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment