আজ : ০৫:৩৬, অগাস্ট ২০ , ২০১৮, ৪ ভাদ্র, ১৪২৫
শিরোনাম :

জঙ্গি সাইফুল ইসলাম সুজন যেমন ছিল যুক্তরাজ্যে


আপডেট:০৪:৩৯, জুলাই ২৬ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাংলা‌দেশ থেকে স্টুডেন্ট ভিসায় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে যুক্তরাজ্যে আসা সাইফুল ইসলাম সুজন এক দশকে পরিণত হয় প্র‌তি‌ষ্ঠিত ব্যবসায়ীতে। এক পর্যায়ে সুজন জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের শীর্ষ নেতাদের একজন হিসেবে আবির্ভূত হয়। বিবিসি ওয়েলসের সাম্প্রতিক এক অনুসন্ধানে তার জঙ্গী তৎপরতার গোড়ার দিককার অজানা তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

২০১৫ সালের শেষভাগে পেন্টাগনের নির্বাহী স্টিভ ওয়ারেন তার এক ভিডিওবার্তায় ‘অপারেশন ইনহেরেন্ট রিজল্ভ’ নামক জঙ্গীবাদবিরোধী সামরিক কর্মসূচির ঘোষণা দেন। ওই ভিডিও থেকে ১০ জন জ্যেষ্ঠ আইএস কর্মীর বিশদ বর্ণনা জানা যায়, যাদেরকে লক্ষ্য করে অভিযান চালানো হয়। ওই ১০ জনের একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সাইফুল হক সুজন, যে গত বছ‌রের ১০ ডিসেম্বর সিরিয়ার কাছে অবস্থিত রাকায় নিহত হয়।সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে, যুক্তরাজ্যে উচ্চশিক্ষা লাভ করা সুজন ছিল আইএসের বিভিন্ন অপারেশনের অন্যতম পরিকল্পনাকারী।ওয়ারেনের মতে, ‘সুজনের মৃত্যুতে আইএস নিঃসন্দেহে তাদের নেটওয়ার্কের একটি গুরুত্বপূর্ণ সূত্র হারিয়েছে।’

কয়েক মাস ধরে তিনটি মহাদেশে চলা এই অনুসন্ধানে ইরাক এবং সিরিয়ায় আইএসের দূত হয়ে ওঠা সুজনের উত্থান সম্পর্কে কিছু অভিনব তথ্য বেরিয়ে এসেছে।২০০০ সালের শুরুর দিকে বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্যে আসে সুজন। ভর্তি হয় দক্ষিণ কার্ডিফের ওল্ড গ্ল্যামরগান বিশ্ববিদ্যালয়ে।

সুজনের দীর্ঘদিনের পরিচিত রব রিস জানিয়েছেন, ‘সে (সুজন) ছিল এমন একজন যাকে আপনি আপনার ছায়ায় আশ্রয় দিতে চাইবেন। তাকে মনে হতো আত্মবিশ্বাসহীন। সর্বদাই সে নিজের কাজ সম্পর্কে সন্দিহান থাকত। ২০০৫ সালের শেষদিকে তার সদ্য বিবাহিতা বাংলাদেশি স্ত্রীর লন্ডন আগমন উপলক্ষে সুজন আমার বাড়িটি কেনার ব্যাপারে কয়েকবার আগ্রহ দেখিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত কেনা না হলেও বাড়ি বিক্রির আলোচনার সূত্রে তার সঙ্গে আমার এবং আমার স্ত্রীর একটি সম্পর্ক গড়ে ওঠে।’

প্রসঙ্গত,ওয়েলসে এসে সুজন সৌভাগ্যের দেখা পায়। আইব্যাকস লিমিটেড নামের একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান স্থাপন, ওয়েলস বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের সঙ্গে যুক্ত হওয়া এবং সাউথ ওয়েলসের নেতৃত্বস্থানীয় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের সাথে হাই প্রোফাইল বাণিজ্য সফর এসবর মধ্যে অন্যতম।

২০১০ সালের শেষে সুজনের ভাই আতাউল হকও ওয়েলসে স্থায়ী হয়। সফটওয়্যারসহ এশীয় খাবারের প্রতিষ্ঠান এবং চীন থেকে আমদানিকৃত যন্ত্রাংশের ব্যাবসার মাধ্যমে আর্থিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়।



সাম্প্রতিক খবর

সড়কে প্রাণ গেল নারী-শিশুসহ ৬ জনের

photo ঢাকা প্রতিনিধি: ফেনীর ছাগলনাইয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারী-শিশুসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও চারজন। ফেনী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার শাহাবুদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, নিহতদের মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। আহতদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ছাগলনাইয়ায় উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুহুরীগঞ্জে সুলতানা ফিলিং স্টেশনের

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment