আজ : ০৫:৪৮, মে ২২ , ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬
শিরোনাম :

বাংলাদেশ চরমপন্থি ধারণাকে দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে: সিলেটে শ্রিংলা


আপডেট:১২:০৩, সেপ্টেম্বর ১৪ , ২০১৮
photo

সিলেট সংবাদদাতা: বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, আজ বাংলাদেশ চরমপন্থি ধারণাকে দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে এবং সাহসী সমাজ হিসেবে সাফল্য অর্জন করেছে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরা গান্ধি অতীতে সম্পর্কের যে বীজ বপন করেছিলেন তা আজ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে দিয়েছেন।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) মন্দিরের ২৫০ কক্ষ বিশিষ্ট ৫ তলা ভবন ছাত্রাবাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন হাইকমিশনার।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) বাংলাদেশের সহ-সভাপতি শ্রীমদ ভক্তিপ্রিয়ম গধাঘর গোস্বামী মহারাজ, ইসকন বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক শ্রীপদ চারুচন্দ্র দাস ব্রহ্মচারী, অতিরিক্ত সচিব মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়, কেন্দ্রীয় সেচ্ছ্বাসেবকলীগ নেতা সুব্রত পুরকায়স্থ।

শুদ্ধসত্য গোবিন্দ দাসের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারতীয় হাইকমিশনার আর বলেন, আজ ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কথা ধরে বলতে চাই আগে আমরা একে অপরের পাশাপাশি ছিলাম এখন আমরা এক অপরের আরো কাছাকাছি এসেছি।

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আছে সেটি দিন দিন আরে গভীর হচ্ছে-এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশ। এধরনের সহযোগিতা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। এদেশের সকল ভালো কাজে আমরা সহযোগিতা করবো।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগতিক বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) সিলেটের অধ্যক্ষ নবদ্বীপ দ্বিজ গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারী। এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন- শ্রীধাম মায়াপুরের শিক্ষক শ্রীপাদ আনন্দবর্ধন দাস ব্রহ্মচারী প্রমুখ।

Posted in সিলেট


সাম্প্রতিক খবর

টাওয়ার হ্যামলেটসের ৩৬ জন বাসিন্দা পেলেন বৃটিশ নাগরিকত্ব

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের রেজিস্টার অফিসের উদ্যোগে আয়োজিত সিটিজেনশীপ অনুষ্ঠানে পরিবার পরিজন ও বন্ধু বান্ধবদের সামনে রাণীর প্রতি আনুগত্য ঘোষনা করে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন ৩৬ জন বাসিন্দা। নাগরিকত্ব গ্রহণের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মেয়র জন বিগস এবং কাউন্সিলের চীফ এক্সিকিউটিভ উইল টাকলি। তাঁরা নতুন বৃটিশ নাগরিকদের বারায় স্বাগত জানান। মেয়র জন বিগস

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment