আজ : ০১:১১, মে ২৪ , ২০১৮, ৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫
শিরোনাম :

সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলাল স্মরনে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের শোকসভা ও দোয়া মাহফিল


আপডেট:০১:৫৮, ফেব্রুয়ারি ১০ , ২০১৮
photo

লন্ডনবিডিনিউজ২৪: বৃহস্পতিবার ৯ ফেব্রুয়ারি পুর্ব লন্ডনের ভ্যালেন্স রোডস্থ একটি হলে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের উদ্যাগে প্রবীণ সাংবাদিক ও সাবেক কাউন্সিলার শাহাব উদ্দিন বেলালের স্মরনে এক শোক সভা ও দোয়ার মাহফিল অনুস্টিত হয়।


প্রেসক্লাব সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশার সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মোহাম্মদ জোবায়েরের সঞ্চালনায় অনুস্টিত শোক সভায় মরহুমের জীবন থেকে স্মৃতি চারনমুলক বক্তব্য রাখেন টাওয়ার হ্যামলেটসের নির্বাহী মেয়র জন বিগস, চ্যানেল এস চেয়ারম্যান আহমেদুস সামাদ চৌধুরী, জনমত সম্পাদক নবাব উদ্দিন, সত্যবাণীর উপদেষ্টা সম্পাদক আবু মুসা হাসান, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুস সাত্তার, সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাসন

সাংবাদিক সৈয়দ বেলাল আহমেদ, পত্রিকা সম্পাদক ইমদাদুল হক চৌধুরী, প্রবীন সাংবাদিক ইসহাক কাজল, সাংবাদিক হামিদ মোহাম্মদ, প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি মাহবুব রহমান, সত্যবাণীর প্রধান সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা, সুরমা সম্পাদক আহমেদ ময়েজ, সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইছির মাহমুদ, টাওয়ার হ্যামলেটসের সাবেক ডেপুটি লীডার রাজন উদ্দিন জালাল, সাবেক মেয়র গোলাম মর্তুজা, সাবেক মেয়র সয়ফুল উদ্দিন, বিসিএ’র সাবেক সভাপতি পাশা খোন্দকার, এটিএন বাংলার মোশতাক বাবুল, চ্যানেল এস’র ফারহান খান, ব্রিটবাংলা সম্পাদক কামাল মেহদী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাহতাব চৌধুরী, জনমতের নির্বাহী সম্পাদক সাঈম চৌধুরী, সাংবাদিক আব্দুল মুনিম ক্যারল, লেখক ও কবি আবু সুফিয়ান প্রমূখ।

বক্তারা বলেন সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলাল ছিলেন একজন সাদা মনের মানুষ। তিনি মানুষের কল্যানে, কমিউনিটির মানুষের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করেছেন এবং বর্ণবাদী আন্দোলনে তার যথেষ্ট ভুমিকা ছিল। শোক সভায় প্রয়াত সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলালের নামে কাউন্সিলের নির্মিত কোন ভবন বা পার্কের নামকরনের জন্য মেয়রের বরাবরে প্রস্তাব রাখা হয়। পরে মরহুমের বিদেহী আত্নার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।



সাম্প্রতিক খবর

১০ বছর ধরে অবৈধ বসবাকারীদের সাধারণ ক্ষমার জন্য অনলাইন স্বাক্ষর অভিযান

বিশেষ প্রতিনিধি: ব্রিটেনে অবৈধভাবে বসবাসকারি ইমিগ্রান্ডদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার দাবীটি ক্রমাগত জোরদার হয়ে ওঠেছে। ইতোমধ্যে নব নিযুক্ত হোম সেক্রেটারি ইমিগ্রান্ডদের স্বার্থ বিরোধী দুটি ধারা বাতিল ঘোষণা করেছেন। ব্রিটিশ ফরেন সেক্রেটারি ও লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসন বরাবরই ইল্লিগ্যাল ইমিগ্রান্টদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষনার পক্ষে মতামত ব্যক্ত করে আসছেন। সম্প্রতি স্টিভ পার্কার

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment