আজ : ০৭:৫৬, ফেব্রুয়ারি ১৬ , ২০১৯, ৪ ফাল্গুন, ১৪২৫
শিরোনাম :

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়: রাশিয়া


আপডেট:০৬:১৭, অগাস্ট ১০ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রমাণ ছাড়াই নিষেধাজ্ঞা আরোপের অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া। দেশটি বলছে, যুক্তরাজ্যে সাবেক রুশ গোয়েন্দার ওপর কথিত বিষাক্ত গ্যাস হামলার অজুহাতে নিষেধাজ্ঞার কথা বলা হচ্ছে। অথচ রাশিয়াই হামলা চালিয়েছে, এমন কোনও প্রমাণ নেই। বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবার এক কনফারেন্স কলে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ।

তিনি বলেন, মার্কিন পদক্ষেপ একেবারেই পক্ষপাতদুষ্ট। তারা আগেও এ ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে। এটি পুরোপুরি অবৈধ। এই পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। একই দিন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রুশ দূতাবাসের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা প্রমাণ ছাড়া নানা বক্তব্য শুনে অভ্যস্ত হয়ে উঠছি।’

পক্ষত্যাগী রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার কন্যা ইউলিয়া স্ক্রিপালের ওপর বিষাক্ত রাসায়নিক গ্যাস প্রয়োগের ঘটনায় বুধবার রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। এদিন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হিদার নোয়ার্ট জানান, যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চিত হয়েছে যে, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে হামলা চালানো হয়েছে অথবা নিজ দেশের নাগরিকদের বিরুদ্ধে রাসায়নিক বা বায়োলজিক্যাল হামলা চালিয়েছে। এই হামলার কারণে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

রাশিয়ার সংবেদনশীল ইলেকট্রনিক উপাদান এবং সমজাতীয় প্রযুক্তি রফতানির ওপর এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হচ্ছে। আগামী ২২ আগস্ট বা এর কাছাকাছি সময়ে এটি কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানা গেছে।

চলতি বছরের মার্চে যুক্তরাজ্যের সালিসবুরি এলাকায় স্ক্রিপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়াকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনার তদন্তে যুক্তরাজ্যের গোয়েন্দারা রাশিয়াকে দায়ী করেন। তবে মস্কো এই হামলায় জড়িত থাকার কথা দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করে আসছে।



সাম্প্রতিক খবর

মিয়ানমার বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপরে আঘাত করেছে: রিজভী

photo ঢাকা প্রতিবেদক: সরকার বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ক্রমাগত ব্যর্থ হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারনে মিয়ানমারও বাংলাদেশকে নিয়ে দুঃসাহস দেখাতে স্পর্ধা দেখাচ্ছে। বারবার মিয়ানমার সরকারীভাবে তাদের ওয়েবসাইটে সেদেশের মানচিত্রে সেন্ট মার্টিন দ্বীপকে নিজের অংশ হিসেবে দেখাচ্ছে। সেদেশের আরাকান

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment