আজ : ১২:৩০, ডিসেম্বর ১১ , ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
শিরোনাম :

এর চেয়ে বড় পাওয়া আর হয় না: রুনা লায়লা


আপডেট:০৬:৫৮, নভেম্বর ১৮ , ২০১৮
photo

বিনোদন ডেস্ক: আলিশান হোটেল যাকে বলে কলকাতার দ্য ওবেরয় গ্র্যান্ড ঠিক যেন তাই। অভ্যর্থনা ডেস্ক থেকে লিফটের কাছে হেঁটে যেতে লাগলো দেড় মিনিট। কাঙ্ক্ষিত নম্বর রুমের দরজা কিছুটা খোলা। ঠকঠক করতেই ভেতর থেকে আওয়াজ এলো, ‘কাম ইন।’ স্বরটা খুব পরিচিত। যার গান শুনে আমাদের মতো কয়েক প্রজন্ম বেড়ে উঠেছে।

ভেতরে ঢুকতেই চোখে পড়লো একটা কেক। আদতে এটা কেক নয়! একঝটকায় কারও বোঝার উপায় নেই এই উপহার রুমাল দিয়ে বানানো। এর বিভিন্ন স্থানে কাপড়ের ফুল। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লার জন্মদিনে তার জন্য ওবেরয় হোটেলের এই উপহার। তিনি বললেন, ‘আমরা একটু কেনাকাটা করতে বেরিয়েছিলাম। ফিরে এসে দেখি টেবিলের ওপর এটা। দারুণ সুন্দরভাবে সাজিয়েছে ওরা।’

শনিবার (১৭ নভেম্বর) কলকাতায় জন্মদিন উদযাপন করেছেন বাংলাদেশের সংগীত জগতের কিংবদন্তি রুনা লায়লা। তার জন্য অভিনেতা আলমগীরের এই আয়োজন। তিনিই ওবেরয় হোটেল বুকিং দিয়েছেন। হোটেল কর্তৃপক্ষ জানতেন ১৬ নভেম্বর বাংলাদেশের এই তারকা দম্পতি আসবেন।

রুমাল দিয়ে বানানো কেকের আদলের উপহারের পাশে আরেকটা উপহার দেখা গেলো। এটিও ওবেরয় কর্তৃপক্ষের দেওয়া। তার সংগীত জীবনের বিভিন্ন মুহূর্তের ১১টি ছবি ও সুস্বাদু খাবারে সাজানো এই উপহারে লেখা ‘হ্যাপি বার্থডে’। কিশোর কুমার ও রাহুল দেব বর্মণ, মান্না দে, মোহাম্মদ রফি, আশা ভোঁসলে, কুমার শানু ও গুলাম আলির সঙ্গে তোলা রুনার ছবি রয়েছে এতে। মেয়ে তানি ও দুই নাতি অ্যারন ও জাইনের সঙ্গে তোলা একটি ছবিও আছে।

কলকাতায় জন্মদিন উদযাপন প্রসঙ্গে রুনা বললেন, ‘প্রতিবার তো সবাইকে নিয়েই জন্মদিন উদযাপন করি। এবার ভাবলাম শুধু আমরা দুজন দিনটি একসঙ্গে কাটাই। আলমগীর সাহেবেরই ইচ্ছে। তিনি বুকিং দেওয়ার পরই ওবেরয় হোটেল কর্তৃপক্ষ এসব (উপহার) পরিকল্পনা করেছিল। (শনিবার) সকালেই তারা আমাকে এই উপহার দিয়ে যায়।’ রুনার মেয়ে তানি ও দুই নাতি থাকেন লন্ডনে। নাতিরা লেখাপড়ার ফাঁকে গান-বাজনা করছে। নানিও তাদের উৎসাহ দিচ্ছেন। গানও রেকর্ড করিয়েছেন।

শ্রোতা ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের উদ্দেশে রুনা লায়লা অনুভূতি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘গত চারদিন ধরে বিভিন্ন মাধ্যমে যত মেসেজ ও ফোন কল পাচ্ছি তাতে কী বলবো, ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না আমি কতটা ইমোশনাল (আবেগপ্রবণ) হয়ে গেছি ও কতটা আনন্দিত। একজন মানুষ ও একজন শিল্পী হিসেবে এত মানুষের দোয়া ও ভালোবাসা পেয়েছি, এর চেয়ে বড় পাওয়া বোধহয় আর হয় না। সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি যারা আমার জন্য দোয়া করেছেন, মঙ্গল কামনা করেছেন ও করছেন এবং আমার জন্মদিনে নানাভাবে মেসেজ পাঠিয়েছেন। অনেক ধন্যবাদ আপনাদের। দোয়া করবেন যেন আমি সুস্থ থেকে ভবিষ্যতে আরও ভালো ভালো গান উপহার দিতে পারি, আপনাদের জন্য গাইতে পারি ও আমাদের দেশের নাম উজ্জ্বল করতে পারি। আপনারা সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।’

আগামী ১৯ নভেম্বর ঢাকায় ফিরবেন আলমগীর ও রুনা লায়লা। তার আগে কলকাতায় এক আত্মীয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে অংশ নেবেন তারা।



সাম্প্রতিক খবর

অংশগ্রহণমূলক ও স্বচ্ছ নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান ইউরোপীয় দেশগুলোর

photo আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সরকার, নির্বাচন কমিশন এবং অন্যান্য অংশগ্রহণকারীদের প্রতি বিশ্বাসযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক ও স্বচ্ছ নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপীয় দেশগুলো। নির্বাচনি প্রচারণা শুরুর প্রাক্কালে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো এবং নরওয়ে ও সুইজারল্যান্ড এই আহ্বান জানিয়েছে। সোমবার ইউরোপীয় দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, নাগরিক অধিকার, মত

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment