আজ : ০১:১২, সেপ্টেম্বর ১৬ , ২০১৯, ১ আশ্বিন, ১৪২৬
শিরোনাম :

অস্ট্রিয়ার মন্ত্রীর বিয়েতে যোগ দিয়ে নেচেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট


আপডেট:০৯:১২, অগাস্ট ১৯ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন আস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারিন নেইসলের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেন। অস্ট্রিয়ার স্টাইরিয়া রাজ্যে এই বিয়ে অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে পুটিন নেচেছেন কারিন নেইসলের সঙ্গে। পুটিন অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে উপহারও দিয়েছেন।

তাকে বিয়েতে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন কারিন নেইসল। অস্ট্রিয়ার সরকারবিরোধী রাজনীতিকরা অভিযোগ করেছেন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্টকে আমন্ত্রণ জানিয়ে কারিন নেইসল ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতিকে তাচ্ছিল্য করেছেন। অস্ট্রিয়ার নারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারিন নেইসলের বয়স ৫৩ বছর। তিনি স্টাইরিয়া রাজ্যের ভিনিয়ার্ডে ব্যবসায়ী ওলফগ্যাং মেইলঙ্গারকে বিয়ে করেছেন।

কারিন নেইসল কোনও দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত নন। স্বতন্ত্র হিসেবে তাকে পরাষ্ট্রমন্ত্রী করেছে অস্ট্রিয়ার দক্ষিণপন্থী ফ্রিডম পার্টির নেতৃত্বাধীন বর্তমান জোট সরকার।

ধারণা করা হয়, এই ফ্রিডম পার্টির সঙ্গে রাশিয়ার ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির সঙ্গে যোগাযোগ আছে।

পুটিন কী উপহার দিলেন আস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে?যাইহোক, পুটিন ফুলের তোড়া হাতে নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রবেশ করেন এবং সেই ফুল তিনি তুলে দেন কনে অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে। তার সঙ্গে ছিল রাশিয়ার সংগীত শিল্পীদের একটি দলও। এই শিল্পীরা বিয়েতে গান পরিবেশন করেন।

রাশিয়া প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র দিমিত্রি পেস্কভ বলেছেন, বিয়েতে অংশ নেওয়া অতিথিরা শিল্পীদলের পারফর্মেন্সের প্রশংসা করেছেন।

বিয়ে নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক

বিতর্কে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতিকে তাচ্ছিল্য করারও অভিযোগ আনা হয়েছে অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারিন নেইসলের বিরুদ্ধে।

আস্ট্রিয়া যেহেতু ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশ। সেই যুক্তি দিয়ে নেইসলের বিরোধীরা এমন অভিযোগ করেন।

এমনকি অস্ট্রিয়ার গ্রিন পার্টি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে কারিন নেইসলের পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুটিনের এই সফরের জন্য অস্ট্রিয়ায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জারি করা হয়। এই নিরাপত্তার জন্য করদাতাদের উপর বাড়তি চাপ পড়বে বলেও রাজনীতিকদের অনেকে অভিযোগ করেছেন।

গণমাধ্যমেও বিতর্ক অব্যাহত

গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, বিয়েতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের আসার বিষয়টি মাত্র সাতদিন আগে ঘোষণা করা হয়েছে।

তবে পুটিনের মুখপাত্র বলেছেন, এ বছরের এপ্রিলে পুটিন যখন অস্ট্রিয়া সফর করেছেন, তখন তাকে এই বিয়ে অনুষ্ঠানের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। তিনি জার্মানি যাওয়ার পথে এই বিয়েতে যোগ দিয়েছিলেন।

পুটিন জার্মানির উত্তর বার্লিনে চ্যান্সেলর এঙ্গেলা মার্কেলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেন তিন ঘণ্টা সময় ধরে। সেখানে তারা সিরিয়া এবং ইউক্রেনের সমস্য নিয়ে আলোচনা করেন। ইউরোপে রাশিয়ার গ্যাস সরবরাহের বিষয়টি তাদের এই আলোচনায় অগ্রাধিকার পেয়েছে।

এদিকে, গ্যাস সরবরাহের পাইপ লাইন নির্মাণের প্রকল্প বন্ধ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র চাপ দিয়ে আসছে জার্মানিকে।

সূত্র: বিবিসি



সাম্প্রতিক খবর

পুর্ব লন্ডনে স্যার জনক্যাস স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রদের পুনর্মিলনী

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ঃ গত রবিবার ১৫ অক্টোবর: পুর্ব লন্ডনের ডকল্যান্ড এলাকার একটি হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল স্যার জনক্যাস স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রদের এক মিলন মেলা। আশির দশকে যারা এ স্কুলে লেখা পড়া করেছিলেন তাদের নিয়ে ছিল এই আয়োজন। পুর্ব লন্ডন ও বিভিন্ন এলাকা এবং এসেক্সের, কেন্ট, ও ব্রিস্টলসহ বৃটেনে ছডিয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রায় ৮০ জন ছাত্র এতে ঊপস্তিত হন। গত কয়েক বছর থেকে এই অনুষ্ঠানটি

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment