আজ : ০৪:৪৯, ডিসেম্বর ১২ , ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
শিরোনাম :

এখন জনগণের ঐক্য প্রয়োজন, সবাইকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে: মির্জা ফখরুল


আপডেট:০৩:২৯, মার্চ ১৪ , ২০১৮
photo

ঢাকা প্রতিনিধি: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। তারা জনগণকে ভয় পায়। মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার সেগুলোকে সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে না। এখন জনগণের ঐক্য প্রয়োজন, সবাইকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

বুধবার (১৪ মার্চ) বিকেলে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের পূবাইল মাঝুখান এলাকায় পুলিশ হেফাজতে নিহত ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন মিলনের বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে মিলনকে গ্রেফতার করে পুলিশ হেফাজতে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। যারাই গণতন্ত্রকে দেখতে চায়, তাদেরই আজ নির্যাতনের শিকার হতে হচ্ছে। তাই আমরা বারবার বলে আসছি, এই সরকার যতোদিন থাকবে ততোদিন জনগণের কষ্ট হবে। এ সরকার দীর্ঘদিন ধরে মানবাধিকার বিরোধী কাজ করছে। নির্যাতন-নিপীড়ন করে সরকার বিরোধী দলকে দমন করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাইছে। একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে চাইছে।

তিনি বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক নয়, সারা বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এই যে ভয়াবহ একটি দুঃশাসন আমাদের বুকের ওপর চেপে বসেছে বিগত দশ বছর ধরে। এই দুঃশাসনকে যদি অপসারণ করতে না পারি, আমাদের যে অর্জিত গণতন্ত্র সে গণতন্ত্র ধ্বংস হয়ে গেছে ইতিমধ্যেই, আমাদের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বিপন্ন হয়ে পড়েছে, এ দেশের মানুষ তাদের অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে পড়বে।

দলের নেতা জাকির হোসেন মিলন শহীদ হয়েছে উল্লেখ করে বিএনপির মাহাসচিব বলেন, তার মতো আরও অনেক নেতাই নির্যাতনের শিকার হয়ে শহীদ হয়েছে। জাকির হোসেনের বাবা নেই। তার পরিবার অসহায় অবস্থায় আছে। তার স্ত্রী, দুই বাচ্চা, তার মা এক করুন অবস্থার মধ্যে বেঁচে আছে। এ রকম শত শত, হাজার হাজার পরিবার আছে বাংলাদেশে।

নিহত ছাত্র দল নেতা মিলনের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে মির্জা ফখরুল তার পরিবারকে এক লাখ টাকা অনুদান দেন। পরে তিনি নিহত মিলনের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও কবর জিয়ারত করে দোয়া করেন। এসময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন- গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলান, সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়েদুল আলম বাবুলসহ বিএনপির নেতা কর্মীরা।

গত ৬ মার্চ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে ফেরার পথে ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সহসভাপতি ও তেজজাঁও থানা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নেয়। রিমান্ড শেষে ১০ মার্চ তাকে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ১২ মার্চ সকালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়লে এক কারারক্ষী জাকিরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকাল পৌনে ৯টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।



সাম্প্রতিক খবর

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে জোরপূর্বক প্রবেশের চেষ্টা, নিরাপত্তা জোরদার

photo আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রিটিশ পার্লামেন্টে জোরপূর্বক প্রবেশের চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে টেজার গান দিয়ে গুলি করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার পার্লামেন্ট প্রাঙ্গন থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। জানা গেছে, অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক হওয়া ওই যুবক রেলিংয়ের ওপর লাফ দিয়ে প্রবেশের চেষ্টা করে। সেসময় তাকে প্রতিহত করার জন্য টেজার গান চালায় পুলিশ । এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ওয়েস্টমিন্সটার প্যালেসের ক্যারিজ

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment