আজ : ০৩:৫৬, ফেব্রুয়ারি ১৭ , ২০১৯, ৫ ফাল্গুন, ১৪২৫
শিরোনাম :

ব্রেক্সিট বাতিল হয়ে গেলে খুশি হবেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী


আপডেট:০৬:২৮, ফেব্রুয়ারি ৫ , ২০১৯
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ব্রেক্সিট বাতিল হয়ে গেলে খুশি হবেন জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস। তবে তিনি এটাও মনে করেন, ‘এক্সিট ফ্রম ব্রেক্সিট’ ঘটার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। গত রবিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) ফাংকি মিডিয়া গ্রুপকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, নতুন করে ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে ইইউয়ের সঙ্গে আলোচনার কোনও সুযোগ নেই।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়ে ২০১৬ সালে যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠিত হয় গণভোট। সেই রায় বাস্তবায়নের জন্য দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়েছে ২০১৯ সালে ২৯ মার্চ। ইইউ থেকে বেরিয়ে গেলে সংস্থাটির সদস্য রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে যুক্তরাজ্যের সম্পর্ক কেমন হবে তা নির্ধারণে চলতে থাকে আলোচনা। দীর্ঘ আলোচনা শেষে দেশটির প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে একটি খসড়া চুক্তি প্রস্তুত করেন। কিন্তু তা কার্যকরে দরকার ছিল ব্রিটিশ সংসদের অনুমোদন। গত ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে হেরে যায় মের ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন খসড়া চুক্তি।

জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাসের ভাষ্য, কোনও ধরনের চুক্তি ছাড়াই আগামী ২৯ মার্চ ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন ঠেকাতে একটাই মাত্র পথ খোলা আছে। আর তা হচ্ছে, ব্রিটিশ সংসদে যে প্রস্তাবনা ভোটে হেরে গেছে, সেটাকেই চুক্তি হিসেবে গ্রহণ করা। তা না হলে ব্রেক্সিটের পরে ব্যবসা-বাণিজ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা, খাদ্য ও পণ্য সরবরাহসহ বিভিন্ন খাতে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে যুক্তরাজ্যের লেনদেনে জটিলতা অবশ্যম্ভাবী।

জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেছেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে চুক্তি নির্ধারণের জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে যে ধরনের আলোচনা হয়েছিল তা পুনরায় করার কোনও সুযোগ নেই। অথচ ওই প্রস্তাবনাটি যুক্তরাজ্যের সংসদে গত মাসের ভোটে হেরে গেছে। ব্রিটিশ সংসদে ভোটে হেরে যাওয়া চুক্তিটি গত দুই বছর ধরে আলোচনার মাধ্যমে প্রস্তুত করা হয়েছিল।

তার ভাষ্য, ‘আমরা যে চুক্তিটি করেছিলাম তা সর্বোচ্চ ছাড় দিয়ে প্রস্তুত করা, বিশেষ করে নর্দান আয়ারল্যান্ডের ব্যাপারে। নর্দান আয়ারল্যান্ডে যেন কোনও স্থায়ী সীমান্ত তৈরি না হয়, আমরা সেটাই চেয়েছিলাম। আমরা চাই না, নর্দান আয়ারল্যান্ড নিয়ে কোনও সংঘাতের সূচনা হোক।’

রয়টার্স লিখেছে, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের ধীর গতি দেখে অনেকেই মন্তব্য করেছেন, আগামী ২৯ মার্চ ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার যে দিনক্ষণ যুক্তরাজ্য নির্ধারণ করে রেখেছে, তা বদল করা উচিত। কিন্তু সেক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যকে আপাতত ইউরোপীয় ইউনিয়নের পূর্ণ সদস্য হিসেবেই থেকে যেতে হবে। হেইকো মাসকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, তিনি এমন কোনও সম্ভাবনা দেখছেন কি না। জবাবে তিনি বলেছেন: তাহলে আমি সবচেয়ে খুশি হব। কিন্তু আমাদের এ ব্যাপারে কোনও কল্পনাপ্রবণতা থাকা উচিত নয়। ‘এক্সিট ফ্রম ব্রেক্সিট’ ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ।



সাম্প্রতিক খবর

আবুধাবি প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী

photo আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবু ধাবিতে আন্তজার্তিক প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম এর আমন্ত্রণে পাঁচদিন ব্যাপী এ প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নেন তিনি। রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণ শেষে জার্মানি থেকে

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment