আজ : ০১:৫৬, অগাস্ট ২১ , ২০১৮, ৫ ভাদ্র, ১৪২৫
শিরোনাম :

ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করা হবে ‘তেতো বড়ি’ গেলা: ইমরান খান


আপডেট:০৪:২৩, জানুয়ারি ১৪ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চলতি বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সাধারণ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করার অনুভূতি সুখকর হবে না বলে জানিয়েছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই) নেতা ইমরান খান। শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে ‘পাপোষের মতো’ ব্যবহার করেছে। দেশটির সংবাদমাধ্যম ডন এই খবর জানিয়েছে।

গত সপ্তাহের শনিবার (৭ জানুয়ারি) এক নির্বাচনী সমাবেশে আফগানিস্তানে মার্কিন নীতি ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করবার পর পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ইমরান এই মন্তব্য করলেন। পাকিস্তানে মার্কিন সামরিক সহায়তা বন্ধের ঘোষণা নিয়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যে ইমরান সেদিন বলেছিলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে জঙ্গিবাদ দমনে ব্যর্থ হয়ে সেই দোষ এখন পাকিস্তানের ওপর চাপাতে চাইছে আমেরিকা।

এই সপ্তাহের শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সেই কথার প্রতিধ্বনি করেন ইমরান। জানান, ৯/১১ হামলার পর ২০০১ সালে মার্কিনিদের সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে পাকিস্তানের অংশগ্রহণের আমি কঠোর বিরোধীতা করেছিলেন তিনি। ইমরান বলেন, পাকিস্তানের এটা নিয়ে কিছুই করার ছিলো না। মার্কিনিদের সঙ্গে পাকিস্তানের সহযোগিতাকে তিনি সমর্থন করেন। তবে আফগান সীমান্তে উপজাতি অধ্যুষিত অঞ্চলে মাঠের যুদ্ধে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীকে গ্রাস করে ফেলাকে সমর্থন করেন না তিনি।

নববর্ষের দিনে এক টুইট বার্তায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য দেওয়া ও সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগ এনে সামরিক সহায়তা বন্ধের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের তরফ থেকে সেই সাহায্য বন্ধের ঘোষণা আসে। গত সপ্তাহে দুই দেশের সেনা প্রধানের আলাপের ভিত্তিতে পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ দফতরের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয় দুই দেশের এই এই সম্পর্কের জটিলতা সাময়িক পর্যায়ের।

প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে কি করবেন এমন প্রশ্নের জবাবে পিটিআই নেতা ইমরান বলেন, অবশ্যই, আমরা কথা বলবো। তবে তিনি মনে করিয়ে দেন মার্কিন কর্তৃপক্ষ সন্ত্রাসবাদ বিরোধী যুদ্ধে নিহত হাজার হাজার পাকিস্তানি সেনা, আর সন্ত্রাসবাদী হামলায় নিহত সাধারণ পাকিস্তানিদের অসম্মান করেছে। ইমরান বলেন, এটা আমার জন্য ‘তেতো বড়ি’ গেলার মতো হলেও তিনি দেখা করবেন।



সাম্প্রতিক খবর

অনুমতি ছাড়া ফৌজদারি মামলায় সরকারি চাকুরেদের গ্রেপ্তার নয়

photo ঢাকা সংবাদদাতা: অভিযোগপত্র গ্রহণের আগে ফৌজদারি মামলায় সরকারি কর্মচারীকে গ্রেপ্তারে সরকারের অনুমতি নেয়ার বাধ্যবাধকতা আরোপ হচ্ছে।সোমবার ঈদের আগে মন্ত্রিসভার শেষ বৈঠকে অনুমোদন হওয়া ‘সরকারি চাকরি আইন ২০১৮’ এর চূড়ান্ত খসড়ায় এমন বিধান রাখা হয়েছে। তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম এই তথ্য জানান। বলেন, ‘আগে গ্রেপ্তার

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment