আজ : ১০:২৩, অগাস্ট ২৪ , ২০১৯, ৯ ভাদ্র, ১৪২৬
শিরোনাম :

হত্যা মামলার রায়ে ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ


আপডেট:০২:৩৪, এপ্রিল ১৮ , ২০১৯
photo

ঢাকা প্রতিনিধি:

বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় ইয়াছিন আলী মোল্লা নামের এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে বাবা-ছেলেসহ পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। এই মামলায় অপর চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়েছে। এই মামলায় অভিযুক্ত প্রমাণ না হওয়ায় ১০ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার এ আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন- গাবতলী উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেন ও আব্দুর রহিম, ইসমাইল হোসেনের দুই ছেলে মামুন ও জুলফিকার আলী টুটুল, একই গ্রামের সিরাজুল ইসলাম। মৃত্যুদণ্ডাদেশ ছাড়াও প্রত্যেকের ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে। হাইকোটের অনুমোদন সাপেক্ষে ৫ জনকে মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রায় কার্যকর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই মামলার অপর আসামি একইগ্রামের সাজাহান আলী সাজু এবং শিপনকে সাত বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক বছরের সাজার আদেশ দেওয়া হয়। আসামি সোহাগকে ৩ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৬ মাসের সাজা, রওশন আলীকে এক বছরের কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ২ মাসের সাজার আদেশ দেওয়া হয়েছে। রায় প্রদানকালে আসামি সোহাগ ও রওশন ছাড়া সবারই উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল মতিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আদালত সুত্রে জানা গেছে, জেলার গাবতলী উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের বাসিন্দা ইয়াছিন আলী মোল্লাকে শত্রুতার জের ধরে ২০০৬ সালের ১৭ জুন একই এলাকার অভিযুক্ত আসামিরা একজোট হয়ে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির স্ত্রী আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে গাবতলী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০০৬ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর চার্জসিট দাখিল করা হয়। সেই মামলায় দীর্ঘদিন শুনানি শেষে আদালতের বিচারক এ আদেশ দেন।



সাম্প্রতিক খবর

সিলেটের প্রবীণ কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবি গোলাম রব্বানি চৌধুরীর ইন্তেকাল

photo লন্ডনবিডিনিউজঃ সিলেটের খুরুমখলা নিবাসি প্রবীণ কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও বিশিষ্ট সমাজসেবি গোলাম রব্বানি গত ১৭ আগস্ট ইন্তেকাল করেন। গোলাম রব্বানী চৌধুরী (আমুদ মিয়া), তার এলাকায় একজন সুপরিচিত ব্যাক্তি ছিলেন। তিনি সামাজিক, রাজনৈতিক বিভিন্ন সংগঠনের সাথে সস্পৃক্ত ছিলেন। তিনি মানুষের সুখে,দুখে আজীবন পাশে থাকতেন এবং মানুষকে বিভিন্ন ভাবে সাহায্যে, সহযোগিতা করতেন। তার মৃত্যুর সংবাদ

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment