আজ : ০৯:০২, মার্চ ২৩ , ২০১৯, ৯ চৈত্র, ১৪২৫
শিরোনাম :

ইংল্যান্ডে স্থায়ী ঠিকানা পেলো বাংলাদেশের বিড়াল


আপডেট:০৭:২৬, মার্চ ১৭ , ২০১৯
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: একটা মেয়ে বিড়ালের গল্প বলি। আম, আনারস ও চাল ভর্তি স্যুটকেসে ঢুকে বাংলাদেশ থেকে লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে পৌঁছে গিয়েছিল সে! ভাগ্যিস প্রাণে বেঁচে যায়। সেখানকার বেসিংস্টোক শহরে স্থায়ী ঠিকানা পেয়েছে বাংলাদেশের এই বিড়াল। তাকে দত্তক নিয়েছেন প্রাণীদরদি যুগল সারাহ ল্যাসি ও ম্যাট বোনার।

ধারণা করা হয়, স্যুটকেসে ফল খেয়ে বেঁচে গেছে বিড়ালটা। তাই তার নাম রাখা হয় ম্যাঙ্গো। তার দায়িত্ব নেয় ইংল্যান্ডের উইমবোর্ন শহরের ক্যাট প্রটেকশনস ফার্নডাউন হোমিং সেন্টার। তার সহায়তায় একটি অর্থতহবিল চালু করা হয়। তারাই ওই দম্পতির হাতে বিড়ালটিকে তুলে দিয়েছে।

বেসিংস্টোকের কিংস ফারলং এলাকায় থাকেন ম্যাটকে নিয়ে থাকেন সারা। তিনি বলেন, ‘বিড়ালটির যুক্তরাজ্যে আসার ঘটনা জেনে অবাক হয়েছি। সে নিশ্চয়ই আতঙ্কগ্রস্ত। তার বেঁচে যাওয়া অবিশ্বাস্য। তাকে ঘরে জায়গা দিতে পেরে আমরা খুব খুশি। সে আমাদের জন্য অনেক আনন্দ বয়ে এনেছে।’

ম্যাঙ্গোসারা জানান, ম্যাঙ্গো বেশ বন্ধুসুলভ ও খেলাপাগল। তবে কখনও কখনও নার্ভাস হয়ে যায় সে। তিনি বলেন, বিড়ালটা দারুণভাবে মানিয়ে নিচ্ছে নতুন বাড়িতে। তার আত্মবিশ্বাস বাড়ছে। ও অনেক মজা করে। খেলনা মাছ তার প্রিয়।

২০১৮ সালের মে মাসে বাংলাদেশ থেকে লন্ডনে যাওয়া স্যুটকেসের মালিক জানান, বিড়ালটি তাদের ঘরের গৃহকর্মীর। লন্ডনে পৌঁছাতে দুটি ফ্লাইট ও কয়েকটি বিমানবন্দরের লাগেজ সিস্টেম পার হতে হয়েছে ম্যাঙ্গোকে।



সাম্প্রতিক খবর

এবার চালক-হেলপার মিলে সিকৃবি শিক্ষার্থী ওয়াসিমকে বাসচাপা দিয়ে হত্যা

photo সিলেট প্রতিবেদক: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শেরপুরে বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) এক শিক্ষার্থীকে হত্যা করেছে বাসটির চালক ও তার সহকারী।নিহত ছাত্রের নাম ওয়াসিম আফনান। তিনি সিকৃবির বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের চতুর্থ বষের ছাত্র। তার বাড়ি হবিগঞ্জে নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়ন রুদ্র গ্রামে। তার বাবার নাম মো. আবু জাহেদ

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment