আজ : ০৪:২৫, ফেব্রুয়ারি ১৭ , ২০১৯, ৫ ফাল্গুন, ১৪২৫
শিরোনাম :

ভেনেজুয়েরার অভিবাসীদের ক্যাম্পে হামলা ও অগ্নিসংযোগ, সীমান্তে সেনা মোতায়েন ব্রাজিলের


আপডেট:০৬:২২, অগাস্ট ২০ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সীমান্তবর্তী শহরে পাকারাইমাতে ভেনেজুয়েরার অভিবাসীদের ক্যাম্পে হামলা ও অগ্নিসংযোগের পর সেখানে সেনা ও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করছে ব্রাজিল। ভেনেজুয়েলা থেকে মানুষের পালানোর ঘটনায় সৃষ্ট আঞ্চলিক উত্তেজনার প্রেক্ষিতে রবিবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট মিশেল থেমের এক জরুরি বৈঠকও ডাকেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

ইকুয়েডরে ভেনেজুয়েলার নাগরিকরা প্রবেশের অনুমতি না নিয়েই সীমান্ত পার হচ্ছে। শনিবার ইকুয়েডর সীমান্তে প্রবেশের নতুন নিয়ম চালু করে। কলম্বিয়া থেকে ইকুয়েডরে প্রবেশে ভেনেজুয়েলার নাগরিকদের পরিচয়পত্রের বদলে পাসপোর্ট প্রদর্শনের নির্দেশনা জারি করা হয়। এরফলে কয়েক হাজার মানুষ ইকুয়েডর সীমান্তে আটকা পড়েন। বেশির ভাগ অভিবাসী দক্ষিণে পেরু ও চিলিতে পরিবারের সঙ্গে যোগ দিতে যাচ্ছে। ভেনেজুয়েলা খাবার ও ওষুধের স্বল্পতার মুখে তারা সবাই উন্নত জীবনের আশায় দেশত্যাগ করছে।

শনিবার ব্রাজিলের সীমান্ত শহর পাকারাইমাতে কয়েকটি অভিবাসী ক্যাম্পে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা হামলা চালায়। ভেনেজুয়েলানরা স্থানীয় এক রেস্তোরাঁ মালিককে মারধরের খবর ছড়িয়ে পড়লে এই হামলা চালানো হয়। সম্প্রতি রোরাইমা রাজ্যে ভেনেজুয়েলার অভিবাসীদের সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। ভেনেজুয়েলার পাশে কয়েকটি ব্রাজিলিয়ান প্রাইভেট কারে ভাংচুর চালানো হয়।

রবিবার সীমান্ত শহরটি শান্ত ছিল। ব্রাজিলের জননিরাপত্তা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই এলাকায় পুলিশকে সহযোগিতা করতে ৬০ সদস্যের একটি সেনা দল পাঠানো হচ্ছে। তারা আজ সোমবার সেখানে পৌঁছাবে। ভেনেজুয়েলার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটির নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ব্রাজিলকে আহ্বান জানিয়েছে।



সাম্প্রতিক খবর

আবুধাবি প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নিলেন প্রধানমন্ত্রী

photo আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবু ধাবিতে আন্তজার্তিক প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছেন সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম এর আমন্ত্রণে পাঁচদিন ব্যাপী এ প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে অংশ নেন তিনি। রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণ শেষে জার্মানি থেকে

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment