আজ : ০৫:০৪, ডিসেম্বর ১২ , ২০১৮, ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
শিরোনাম :

এক ঝাঁক মেধাবী ছাত্রছাত্রীকে এক্সেল এ্যাওয়ার্ড প্রদান


আপডেট:১১:৪৮, নভেম্বর ১৮ , ২০১৭
photo

শিহাবুজ্জামান কামালঃ বিপুল উৎসাহ, উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এক্সেল এ্যাওয়ার্ড সেরিমনি ২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার ১৮ নভেম্বর পূর্ব লন্ডনের বিগল্যান্ড স্ট্রীটে অবস্থিত কেয়ার হাউসে ছিল এই এ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠান। রেদয়ান করিম ও লুবাব আজাদের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কালামেপাক থেকে তেলাওয়াত পেশ করেন ইদ্রিস বান্না হাসান এবং এর তরজমা পেশ করেন খাদিজা নুর। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এক্সেল এ্যাওয়ার্ড কমিটির চেয়ার শাব্বির আহমদ কাওসার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাজ বেলায়েত হোসেন।

জিসিএসই, এলেভেল, সাটস ও ডিগ্রী পর্যায়ে পড়ালেখায় যে সকল ছাত্রছাত্রীরা অসাধারণ ভাল ফলাফল অর্জন করেছে, তাঁদেরকে এ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া কমিউনিটির উন্নয়নে যারা বিশেষ অবদান রেখেছেন সবমিলে এবছর প্রায় ৬৫ জনকে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ইসলামী শরীয়া কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হাফেজ মাওলানা আবু সায়ীদ, দাওয়াতুল ইসলামের আমীর হাসান মইনুদ্দীন, জাজ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা আব্দুর রহমান আল-মাদানী, ফয়জুল ইসলাম, শাব্বির আহমদ কাওসার প্রমুখ। বক্তারা বলেন আমাদের সন্তানেরা আশার আলো, আগানী দিনের ভবিষ্যৎ। লেখাপড়ায় তাঁদের আশাতীত সফলতায় এ বহুজাতিক সমাজে তাঁরা আমাদের মুখ উজ্জ্বল করছে। এ এ্যাওয়ার্ড প্রদানের মাধ্যমে তাঁদেরকে উৎসাহ, অনুপ্রাণিত করা হচ্ছে এবং অন্যরা অনুপ্রাণিত হবে। তাদের এ সফলতার ধরা যাতে অব্যাহত থাকে সেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত অনেকে তাঁদের সফলতা ও অনুভুতি ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তদের পিতামাতা, অভিভাবক ও কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে দারুল উম্মা ট্যালেন্ট ক্লাবের ছাত্রীরা ইসলামী নাশিদ পরিবেশন করে।

উল্লেখ্যঃ ২০০৬ সালে প্রথম এক্সেল এ্যাওয়ার্ড প্রদান শুরু হয়।



সাম্প্রতিক খবর

সুষ্ঠু ভোট আদায় করব, শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকব: ড. কামাল

photo সিলেট প্রতিনিধি: জাতীয় ঐকফ্রন্টের শীর্ষনেতা গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, স্বাধীনতার লক্ষ্যই সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন। কিন্তু প্রতিদিনই আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। এটি সুষ্ঠু নির্বাচনের আলামত নয়। আর সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে জনগণের মালিকানা থাকে না। আর জনগণের মালিকানা না থাকলে স্বাধীনতা থাকে না। তিনি বলেন, আমরা শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত মাঠে থাকব। সুষ্ঠু নির্বাচন

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment