আজ : ০৭:৩৭, এপ্রিল ২১ , ২০১৯, ৮ বৈশাখ, ১৪২৬
শিরোনাম :

সিলেটের ১১ উপজেলায় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী যারা


আপডেট:০৩:৩৩, ফেব্রুয়ারি ১০ , ২০১৯
photo

সিলেট প্রতিবেদক: প্রথম ও দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। দ্বিতীয় দফায় সিলেটের ১৩ উপজেলার ১২টিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান পদে ১১ উপজেলায় প্রার্থীদের নাম প্রকাশ করেছে। আর বিএনপির প্রার্থীরা দলের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন।

দ্বিতীয় দফায় অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে সিলেট সদর, কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনগাট, জৈন্তাপুর, দক্ষিণ সুরমা, বিশ্বনাথ, জকিগঞ্জ, কানাইঘাট, গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যন পদে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে ক্ষমতাসীন দলটি বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যানদের গুরুত্ব দিয়েছে। কেবলমাত্র আইনি জটিলতা কাটিয়ে ওঠা ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থীদের নাম রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

সিলেটের ১১টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীতরা হলেন- সিলেট সদরে বর্তমান চেয়ারম্যান আশফাক আহমেদ, বিশ্বনাথে এসএম নুনু মিয়া, বালাগঞ্জে সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান মফুর, কোম্পানীগঞ্জে জাহাঙ্গীর আলম, গোয়াইনঘাটে গোলাম কিবরিয়া হেলাল, জৈন্তাপুরে লিয়াকত আলী, কানাইঘাটে আব্দুল মোমিন চৌধুরী, জকিগঞ্জে লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, গোলাপগঞ্জে বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ চৌধুরী, বিয়ানীবাজারে বর্তমান চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান খান, দক্ষিণ সুরমায় বর্তমান চেয়ারম্যান আবু জাহিদ।

আগামী ১৮ মার্চ সিলেটের ১৩টি উপজেলার ১২টিতে চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী রিটানিং/সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি, বাছাই ২০ ফেব্রুয়ারি, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৭ ফেব্রুয়ারি।

Posted in সিলেট


সাম্প্রতিক খবর

সরকারের হস্তক্ষেপের কারণে খালেদা জিয়া জামিন পাচ্ছেন না : আলাল

photo ঢাকা প্রতিনিধি: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, বাংলাদেশে খাতা-কলমে আইন আছে, প্রশাসনও আছে। কিন্তু আইনের শাসন বলতে যেটা বোঝায় সেটা কিন্তু আওয়ামী লীগের আমলে নেই। আইনের শাসন নেই বলেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সরকারের হস্তক্ষেপের কারণেই মুক্তি পাচ্ছে না। আইন যদি থাকত আর আইনের বাস্তবায়ন থাকত তিনি অবশ্যই অনেক আগেই জামিন পেতেন। সরকারের পক্ষ থেকে বারবার জামিনে

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment