আজ : ০৯:২০, এপ্রিল ১৯ , ২০১৯, ৬ বৈশাখ, ১৪২৬
শিরোনাম :

জামিনের শর্ত ভঙ্গে দোষী সাব্যস্ত হলেন অ্যাসাঞ্জ


আপডেট:১১:৩০, এপ্রিল ১২ , ২০১৯
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জামিনের শর্ত ভঙ্গের দায়ে উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে দোষী সাব্যস্ত করেছে যুক্তরাজ্যের একটি আদালত। বৃহস্পতিবার লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাস থেকে তাকে গ্রেফতারের পর যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট মিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোলা হয়। সেখানে ২০১২ সালের জামিনের শর্ত ভঙ্গে অভিযোগের শুনানিতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন অ্যাসাঞ্জ।

২০১২ সালের জুন থেকে লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে ছিলেন উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ৪ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) উইকিলিকসের টুইটে বলা হয়,ইকুয়েডর সরকারের উচ্চ পর্যায়ের দুইটি সূত্র থেকে তারা নিশ্চিত হয়েছে যে কয়েক ঘণ্টা থেকে কয়েক দিনের মধ্যে অ্যাসাঞ্জকে দূতাবাস থেকে তাড়ানো হতে পারে। সেই ধারাবাহিকতায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রত্যাহার করে বৃহস্পতিবার তাকে ব্রিটিশ পুলিশের হাতে তুলে দেয় ইকুয়েডর। গ্রেফতারের পর অ্যাসাঞ্জকে লন্ডনের ওয়েস্ট মিনিস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতের শুনানিতে দেরিতে উপস্থিত হয় অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীর দল। ওই সময়ে তিনি গ্রেফতারের সময়ে ইকুয়েডর দূতাবাস থেকে সাথে করে নিয়ে আসা গোর ভাইডালের লেখা একটি বইয়ের পাতা উল্টাচ্ছিলেন। পরে শুনানিতে হাজির হয়ে অ্যাসাঞ্জের আইনজীবী ড্যান ওয়াকার আদালতে বলেন, জামিনের শর্ত ভঙ্গ করার পেছনে অ্যাসাঞ্জের যুক্তিসঙ্গত কারণ ছিল। কারণ তিনি মনে করেন ব্রিটিশ আদালতে তিনি কখনোই ন্যায়বিচার পাননি। তার আশঙ্কা তাকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়া হতে পারে।

দুই পক্ষের শুনানি শেষে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাইকেল স্নো তার বিরুদ্ধে জামিনের শর্ত ভঙ্গের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করেন। আর অ্যাসাঞ্জের দণ্ড ঘোষণার জন্য মামলাটি রাজ আদালতে পাঠিয়ে দেন।



সাম্প্রতিক খবর

সরকারের হস্তক্ষেপের কারণে খালেদা জিয়া জামিন পাচ্ছেন না : আলাল

photo ঢাকা প্রতিনিধি: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, বাংলাদেশে খাতা-কলমে আইন আছে, প্রশাসনও আছে। কিন্তু আইনের শাসন বলতে যেটা বোঝায় সেটা কিন্তু আওয়ামী লীগের আমলে নেই। আইনের শাসন নেই বলেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সরকারের হস্তক্ষেপের কারণেই মুক্তি পাচ্ছে না। আইন যদি থাকত আর আইনের বাস্তবায়ন থাকত তিনি অবশ্যই অনেক আগেই জামিন পেতেন। সরকারের পক্ষ থেকে বারবার জামিনে

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment