আজ : ০৭:০৫, ফেব্রুয়ারি ১৬ , ২০১৯, ৪ ফাল্গুন, ১৪২৫
শিরোনাম :

শেয়ার কেলেঙ্কারি: মার্ক বাংলাদেশের মালিকদের জেল-জরিমানা


আপডেট:১১:৪১, জুন ২৪ , ২০১৮
photo

ঢাকা সংবাদদাতা: শেয়ার কেলেঙ্কারির মামলায় জেল-জরিমানা হয়েছে মার্ক বাংলাদেশ শিল্প অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডের মালিকদের। কোম্পানি এবং এর তিন পরিচালককে ৫০ লাখ টাকা করে দুই কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তিন পরিচালকের প্রত্যেকের পাঁচ বছরের কারাদণ্ডও হয়েছে।পুঁজিবাজার সংক্রান্ত মামলা নিষ্পত্তিতে ঢাকার মতিঝিলে স্থাপিত বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক আকবর আলী শেখ রোববার এই রায় দেন।

আসামিদের মধ্যে মার্ক বাংলাদেশ শিল্প অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমাম মুলকুতুর রহমান মারা গেছেন। ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল হাই ও পরিচালক সালমা আক্তার পলাতক।

পুঁজিবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির প্যানেল আইনজীবী মাসুদ রানা খান বলেন, অভিযুক্ত মুলকুতুর রহমান মারা গেলেও তা আদালত আনুষ্ঠানিকভাবে জানে না। যে কারণে তাকেও জেল এবং জরিমানা করা হয়েছে।বাকি দুই আসামির বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন বিচারক আকবর আলী শেখ। তবে তাদের গ্রেপ্তার করা যায়নি।

অ্যাডভোকেট মাসুদ রানা বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তার কিংবা তাদের আত্মসমর্পণের দিন থেকে কারাদণ্ডের হিসাব শুরু হবে। এছাড়া জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে আসামিদের আরও ৬ মাস করে কারাভোগ করতে হবে।১৯৯৯ সালে শেয়ার বাজার নিয়ে কারসাজির দায়ে ২০০০ সালে মার্ক বাংলাদেশ শিল্প অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি এবং এর তিন পরিচালককে আসামি করে মামলা হয়।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির তৎকালীন উপপরিচালক আহমেদ হোসেন মামলাটি দায়ের করেন।

সিকিউরিটিজ অধ্যাদেমের ধারায় করা মামলাটি ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালত থেকে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তরিত হয়।পারস্পরিক যোগসাজশে কারসাজি করে শেয়ারের দামের হেরফের ঘটিয়ে আসামিরা লাভবান হয়েছেন বলে প্রমাণ পাওয়ায় তাদের শাস্তি দিয়েছে আদালত।



সাম্প্রতিক খবর

জামায়াত ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধের বিচার চলবে: কাদের

photo ঢাকা প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছর জামায়াত এখন ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি কেনো সামনে নিয়ে আসছে, এটা ঘোলাটে। তাদের রাজনৈতিক কৌশল হতে পারে। যদিও অফিসিয়ালি তারা এখনও কিছু বলেনি। তবে ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধের যে বিচার চলছে, সেটা বন্ধ হবে না। শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment