আজ : ১০:০০, নভেম্বর ১৮ , ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫
শিরোনাম :

বাংলাদেশের প্রশ্নপত্র ফাঁস মন্ত্রীর পুরষ্কার লাভ ও কিছু কথা


আপডেট:০৮:০৯, ফেব্রুয়ারি ৪ , ২০১৮
photo
রোমান বখত চৌধুরীঃ বাংলাদেশের বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী ‘নুইনা’-কে যারা ব্যর্থ বলেন তারা আসলে অন্ধ। আচ্ছা কোন লোক যদি ব্যর্থই হয়, তাহলে পুরষ্কার জোটে কিভাবে?
‘নুইনা’ আসলে নুরুল ইসলাম নাহিদের সংক্ষিপ্ত রূপ। উনার পুরো নামের অর্থ ‘ইসলামের আলো’ যা উচ্চারণ অযোগ্য। কার্যত কোন আলোই আপাতত দেখা যাচ্ছে না। পুরো জাতিকে অন্ধকারে নিমজ্জিত করে সবটুকু আলো নিজের উপর প্রক্ষেপ করেছেন এই স্বার্থপর মানুষটি। জুটিয়েছেন আলোক বর্তিকার পুরষ্কার। তামাশা আর কাকে বলে!
দৈনিক কালের কণ্ঠে প্রকাশিত পুরো সংবাদটি দেখুন,
“শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ওয়ার্ল্ড এডুকেশন কংগ্রেস গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড-২০১৭-এর জন্য মনোনীত হয়েছেন । আগামী ২৩-২৪ নভেম্বর মুম্বাইয়ে অনুষ্ঠেয় ষষ্ঠ ওয়ার্ল্ড এডুকেশন কংগ্রেস সম্মেলনে তাঁকে এ পুরস্কার দেওয়া হবে।
শিক্ষাক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তাঁকে এ অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়, শিক্ষাক্ষেত্রে নেতৃত্ব ও অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে তিনি এ পুরস্কার পাচ্ছেন। অ্যাওয়ার্ড হিসেবে একটি ট্রফি ও সাইটেশন প্রদান করা হবে।
ওয়ার্ল্ড এডুকেশন কংগ্রেসের অ্যাওয়ার্ডস ও একাডেমিক কমিটির চেয়ারম্যান বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রীকে পাঠানো পত্রে বলেন, ‘শিক্ষাক্ষেত্রে আপনার নেতৃত্ব ও অবদান সুপরিচিত। এ ক্ষেত্রে আপনি গুরুত্বপূর্ণ ও আইকনিক ব্যক্তি।’ শিক্ষামন্ত্রীকে তিনি চিন্তাবিদ, কর্মী এবং পরিবর্তনে বিশ্বাসী একজন রোল মডেল ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন।“
আসলে যারা বা যেসব দেশ বাংলাদেশকে ব্যর্থ হিসেবে দেখতে চেয়েছে তাদের জন্য এই ‘নুইনা’ সাহেব একজন সফল ব্যক্তি। আর এমন সফল ব্যক্তিকে পুরষ্কার না দিলে কি হয়! ভারতের মুম্বাইয়ে অনুষ্ঠেয় ষষ্ঠ ওয়ার্ল্ড এডুকেশন কংগ্রেস কর্তৃপক্ষ কি খেয়াল করেন না যে, বাংলাদেশে এই মন্ত্রীর আমলে প্রথম শ্রেণী থেকে শুরু করে সকল পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে আছে। তিনি প্রত্যক্ষ জনসমক্ষে পরিমিত ঘুষ খাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তাঁর কর্মকর্তারা ঘুষ গ্রহনে পরিমিতি না মানায় আটক হয়েছেন কিছুদিন হয়। আর এর পরও মন্ত্রী যদি পুরষ্কারের যোগ্য বিবেচিত হন, তাহলে বুঝতে হবে ‘ডাল মে কুচ কালা হ্যায়’। তবে খুঁজে নেয়া দরকার, আমাদের শত্রু দেশ পাকিস্তানের কোন হাত এখানে আছে কি না?
একটি কথা আছে যে, কোন দেশকে যদি অকার্যকর করতে চাও, তাহলে তাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দাও। যুব সমাজকে মাতাল করে রাখো। কয়দিন পরে দেখবে ওই মাতাল আর মূর্খেরা পয়সার নেশায় স্বাধীন একটি দেশকেও সিকিম বানিয়ে ফেলবে।
সত্যি কথা বলতে কি, এই সরকারও বিদেশী কারো এজেন্ডা মাথায় নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে দায়িত্ব দিয়েছে। আর শিক্ষামন্ত্রী সফল দেখেই সরকার কিন্তু মন্ত্রীর প্রতি জনগণের এত এত বিরূপ প্রতিক্রিয়ার পরেও তাকে বাতিল করছে না। বরং শিক্ষামন্ত্রী প্রশ্নপত্র ফাঁস হলে পরীক্ষা বাতিলেরই হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। অনেক সময় কারো ব্যর্থতা কিন্তু অন্যের সফলতা হিসেবে দাড়ায়। যেমন বাংলাদেশের এই ব্যর্থতা কারো সফলতা। আমাদের মহামান্য ‘নুইনা’ মন্ত্রী এরকম ব্যর্থ হয়েই, সফল কাউকে খুশী করতে পেরেছেন। পুরস্কার তো আর এমনি এমনি জুটে না।
সরকারও বিদেশী এজেন্ডা আমলে নিয়েছে। Restraint ও Restriction এর মূলনীতিতে বাকশালিয় গণতন্ত্রের ‘ডাণ্ডা’ মডেলের যে পরীক্ষা নিরিক্ষা বাংলাদেশে চলছে, তাতে সুশিক্ষা ও নৈতিকতা জ্ঞান একটি বড় অন্তরায়। সুশিক্ষা বা উন্নত শিক্ষায় মানুষ কিন্তু অধিকার সচেতন হয়ে উঠে। আর সেই সচেতনতা সবসময় সমাজের অত্যাচার ও অনৈতিকতাকে চ্যালেঞ্জ করে থাকে। তাই বাংলাদেশে এখন সরকারের বেঁধে দেয়া একটি নির্দিষ্ট মান পর্যন্ত শিক্ষা আপনি নিতে পারবেন। কারণ, কোন চ্যালেঞ্জ উঠে আসুক শিক্ষা ব্যবস্থা থেকে, তা সরকার প্রধান চান না। আর পৃথিবীতে যেভাবে উগ্র জাতীয়তাবাদ ও রক্ষণশীলতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে, তাতে বাংলাদেশে চালু হওয়া এই বাকশালিয় গণতন্ত্রের ‘ডাণ্ডা’ মডেল, রাজনীতি বিজ্ঞান শাখায় একটি থিওরি হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে ধারনা করা যায়। তখন নিশ্চয় আরও অনেক অনেক পুরষ্কার হাতছানি দিবে।
আমার কেন জানি মনে হয়, পঁচাত্তরের পনের আগস্টের শাস্তি আজ পুরো জাতিকে ভোগ করানো হচ্ছে!
Posted in মতামত


সাম্প্রতিক খবর

মন্ত্রী-এমপিদের দুর্নীতি ঢাকতেই আয়কর রিটার্ন দাখিলের বিধান রদ: রিজভী

photo ঢাকা সংবাদদাতা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে নির্বাচন কমিশন বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়া আওয়ামী লীগের দুর্নীতিবাজদের ভোটে সুরক্ষা দিতে রিটার্ন দাখিলের বাধ্যবাধকতা তুলে দিয়েছে ইসি। মূলত আওয়ামী দুর্নীতিবাজদেরকে ভোটে বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দিতে আয়কর রিটার্ন দাখিল বাধ্যতামূলক করার বিধান

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment