আজ : ১২:৫৭, মে ২৪ , ২০১৮, ৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫
শিরোনাম :

দক্ষিণের সঙ্গে সংলাপ স্থগিত উত্তর কোরিয়ার, হুমকিতে ট্রাম্প-কিম বৈঠক


আপডেট:০৫:৫১, মে ১৬ , ২০১৮
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র ও কোরিয়ার চলমান যৌথ সামরিক মহড়ার জেরে দক্ষিণের সঙ্গে বুধবারের শীর্ষ পর্যায়ের সংলাপ স্থগিত করেছে উত্তর কোরিয়া। দেশটি বলেছে এই সামরিক মহড়া বিভক্ত কোরিয় উপদ্বীপের উষ্ণ সম্পর্কের জন্য হুমকি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ’র খবরে আগামী মাসে উত্তর কোরিয় নেতা কিম জং উনের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠক পরিকল্পনা মতো হবে কিনা তা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে।

কেসিএনসি’র বরাত দিয়ে দক্ষিণ কোরীয় সংবাদ সংস্থা উনহাপ বলেছে, আমাদের লক্ষ্য করে দক্ষিণ কোরিয়াজুড়ে দেওয়া এই মহড়া পানমুনজোম ঘোষণাবিরোধী ও আন্তর্জাতিক সামরিক উস্কানি। মহড়াটি কোরীয় উপদ্বীপে চলমান ইতিবাচক রাজনৈতিক উন্নয়নের বিপরীত। বার্তা সংস্থাটি আরও বলেছে, দক্ষিণ কোরীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যৌথভাবে এই সামরিক উস্কানি দেওয়ার পর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের আরও সতর্ক আলোচনা করা উচিত।

পিয়ংইয়ংয়ের এমন সতর্কতার পরও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর বলেছে, তারা আগামী ১২ জুন পরিকল্পনা মতো সিঙ্গাপুরে বৈঠকটি করতে যাচ্ছে। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র হেদার ন্যুয়ের্ট সাংবাদিকদের বলেন, কিম জং উন এর আগে বলেছিলেন যে, তিনি যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়া চালিয়ে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা বোঝেন। আমরা বৈঠকের পরিকল্পনা এগিয়ে নিয়ে যাব। তিনি আরও বলেন, ওয়াশিংটন উত্তর কোরিয়ার অবস্থান পরিবর্তনের কোনও ইঙ্গিত পায়নি।

দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণ মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার জানায়, বুধবারের বৈঠকে গত ২৭ এপ্রিল সীমান্তবর্তী গ্রাম পানমুনজোমের অনুষ্ঠিত আন্তঃকোরিয়া সম্মেলনের দেওয়া ঘোষণা বাস্তবায়নের পরিকল্পনার ওপর জোর দেওয়ার কথা ছিল। এর মধ্যে কোরীয় যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ও সম্পূর্ণ পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ অন্তর্ভূক্ত ছিল।

কেসিএনএ মার্কিন-দক্ষিণ কোরিয় ম্যাক্স থান্ডার বিমান হামলা অনুশীলনকে একটি উস্কানি হিসেবে অ্যাখ্যা দেয়। বার্তা সংস্থাটি বলেছে, উত্তর কোরিয়ার এখন সংলাপ বন্ধ করা ছাড়া কোনও উপায় নেই। দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে চলমান সামরিক মহড়া পরিচালনাকারী মার্কিন সামরিক সদর দফতর পেন্টাগন জানিয়েছে, তারা নিয়মিত প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হিসেবে এই মহড়া দিয়েছে। দ্য ম্যাক্স থান্ডার ১৪ থেকে ২৫ মে পর্যন্ত চলবে।

এক বিবৃতিতে দফতরটি থেকে বলা হয়, এই প্রতিরক্ষা মহড়া দক্ষিণ কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের আওতায় সামরিক প্রস্তুতির জন্য নেওয়া বার্ষিক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি।



সাম্প্রতিক খবর

১০ বছর ধরে অবৈধ বসবাকারীদের সাধারণ ক্ষমার জন্য অনলাইন স্বাক্ষর অভিযান

বিশেষ প্রতিনিধি: ব্রিটেনে অবৈধভাবে বসবাসকারি ইমিগ্রান্ডদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার দাবীটি ক্রমাগত জোরদার হয়ে ওঠেছে। ইতোমধ্যে নব নিযুক্ত হোম সেক্রেটারি ইমিগ্রান্ডদের স্বার্থ বিরোধী দুটি ধারা বাতিল ঘোষণা করেছেন। ব্রিটিশ ফরেন সেক্রেটারি ও লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসন বরাবরই ইল্লিগ্যাল ইমিগ্রান্টদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষনার পক্ষে মতামত ব্যক্ত করে আসছেন। সম্প্রতি স্টিভ পার্কার

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment