আজ : ০৩:৩৭, জুলাই ২২ , ২০১৯, ৬ শ্রাবণ, ১৪২৬
শিরোনাম :

উইনস্টন চার্চিলকে ‘ভিলেন’ বললেন লেবার পার্টির এমপি ‌


আপডেট:০৫:১৯, ফেব্রুয়ারি ১৪ , ২০১৯
photo

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জরিপে যিনি সর্বকালের সেরা ‘ব্রিটিশ’ বলে নির্বাচিত হয়েছিলেন, সেই দূরদর্শী রাজনীতিক উইনস্টন চার্চিলকে ‘ভিলেন’ বলে আখ্যা দিলেন ব্রিটেনের বিরোধী দল লেবার পার্টির সংসদ সদস্য (এমপি) জন ম্যাকডোনেল। ১৯১০ সালে খনি শ্রমিকদের আন্দোলনের সময় তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চার্চিলের ভূমিকার সমালোচনা করে তাকে এই আখ্যা দেন সিনিয়র এমপি ম্যাকডোনেল।

একটি রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে ছায়া মন্ত্রিসভার চ্যান্সেলর ম্যাকডোনেলকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। এসব প্রশ্নের উত্তর দেন লেবার পার্টির এই রাজনীতিক। এক পর্যায়ে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালে মিত্রশক্তির অন্যতম শীর্ষনেতা ও ব্রিটেনের দুইবারের প্রধানমন্ত্রী স্যার উইনস্টন চার্চিল ‘হিরো’ নাকি ‘ভিলেন’- প্রশ্ন করা হলে ম্যাকডোনেল বলেন, ‘টনিপ্যান্ডি-ভিলেন!’

সরকারি ব্যবস্থাপনার প্রতি খনি শ্রমিকদের ক্ষোভ-অসন্তোষের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে সাউথ ওয়েলসের রোন্ডা এলাকায় আন্দোলন ছড়িয়েছিল। এই আন্দোলন শেষতক সহিংসতায় গড়ায়। সহিংস এই আন্দোলনই পরিচিত হয় ‘টনিপ্যান্ডি রায়ট’ বলে। সহিংসতা বন্ধে তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চার্চিল সেখানে সেনাবাহিনী পাঠান। ওই আন্দোলনে একজন নিহত, অনেকে আহত এবং বেশ ক’জন শ্রমিক গ্রেফতার হন।

আন্দোলন দমনে সেনা পাঠানোর ওই সিদ্ধান্তের জন্য পুরো রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে ভুগতে হয় চার্চিলকে। মানবাধিকার নেতারা ওই সিদ্ধান্তকে ‘শ্রমিক-অধিকারবিরোধী অবস্থান’ চিহ্নিত করেছিলেন। এমনকি চার দশক পর ১৯৫০ সালে দ্বিতীয় দফায় প্রধানমন্ত্রী পদে নির্বাচনী প্রচারণায়ও চার্চিলকে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়, যেজন্য ব্রিটিশ এই রাজনীতিক অনুশোচনা প্রকাশ করেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইউরোপসহ মিত্রশক্তিকে অক্ষশক্তির হাত থেকে রক্ষায় ভূমিকার জন্য সেসময়ের প্রধানমন্ত্রী চার্চিলকে তার অনুসারীরা মহান নেতা হিসেবে সম্মান করেন। এমনকি ২০০২ সালে সর্বকালের সেরা ব্রিটিশ নির্বাচনে যে জরিপ হয়েছিল, তাতেও সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে জিতেছিলেন চার্চিল।

তবে ম্যাকডোনেল ভিলেন বললেও চার্চিলকে সেই সম্মানের জায়গায়ই রাখছেন লেবার পার্টির অন্য এমপিরা। সেই দলের আরেক এমপি ইয়ান অস্টিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চার্চিলের ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘...একজন সত্যিকারের ব্রিটিশ হিরো, সর্বকালের সেরা ব্রিটিশ, যিনি নাজিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ব্রিটিশদের অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিলেন এবং কেবল আমাদের স্বাধীনতার জন্য নয়, বিশ্বের মুক্তির জন্যও লড়াই করেছিলেন।’

বর্তমান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককও টুইট করে বলেছেন, ‘চার্চিল ছিলেন সর্বকালের সেরাদের একজন।’



সাম্প্রতিক খবর

কেবিনেট মেম্বার আমিনা আলীর সাথে কেয়ারার্স এসোসিয়েশনেের নেতৃবৃন্দের সভা

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ঃ একজন কেয়ারারের সপ্তাহে ১২ ঘন্টা কন্ট্রাক্টের আওতায় প্রতিদিন সকালে ১ ঘন্টা, দুপুরে ৩০ মিনিট আবার বিকেলে ৩০ মিনিট কাজ দিয়ে সারাদিন আটকে রেখে কন্ট্রাক্টের অপব্যবহার না করে এজেন্সি গুলোকে কাজে শিফটিং ব্যবস্থা চালু করে এক শিফটের মধ্যে কন্ট্রাক্টের আওয়ার নিয়ে আনা ও অন্যান্য দাবী নিয়ে গত ১৫ জুলাই সোমবার বিকেল ৬ টায় টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলের এডাল্টস,

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment