আজ : ১২:২১, নভেম্বর ২২ , ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬
শিরোনাম :

লগ-ইন লগ-আউটের সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ে কাউন্সিলের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে কেয়ারার্স এসোসিয়েশনের আলোচনা সভা


আপডেট:১২:২৭, জুন ২০ , ২০১৯
photo
লন্ডনবিডিনিউজ২৪ঃ দীর্ঘদিন যাবৎ টাওয়ার হ্যামলেটস এ কেয়ার সেক্টরে বিরাজমান লগ ইন ও লগ আউট সমস্যা নিরসনের দাবী জানান সর্বস্তরের কেয়ারার ও সাপোর্ট ওয়ার্কারবৃন্দ। টাওয়ার হ্যামলেট কেয়ারার্স এসোসিয়েশন কেয়ারারদের এই দাবী সহ অন্যান্য দাবী আদায়ের ব্যাপারে প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। গত ১৮ জুন মঙ্গলবার টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলের উচ্চ পদস্থ দুই কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে কেয়ারার্স এসোসিয়েশনের এক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় কাউন্সিলের এ বিষয়ক দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা গণ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে লগইন ও লগ আউটের ত্রুটি সমুহের কথা শুনেন এবং বিষয়টি সুরাহার জন্য কাউন্সিল, কেয়ার এজেন্সি ও টাওয়ার হ্যামলেটস কেয়ারার্স এসোসিয়েশনেক ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার আহবান জানান। উল্লেখ্যঃ এ বৈঠক ছিলো গত ৬ জুন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নির্বাহী মেয়র জন বিগসের সাথে,কেয়ারার্স এসোসিয়েশনের আলোচনা সভা পরবর্তী ফলোঅপ বৈঠক। মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় মালবারি প্লেসের মেয়র অফিসের মিটিং রুমে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিল পক্ষে থেকে সেখানে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার সিরাজুল ইসলাম, সাবেক স্পীকার কাউন্সিলার আয়াস মিয়া, ইন্টিগ্রেটেড কমিশনিংগের জয়েন্ট ডাইরেক্টর ওয়ারইউক থমসেট ও হেড অব কমিশনিং কিথ বার্নস। এছাড়া কেয়ারার্স এসোসিয়েশনের প্রতিনিধি দলে ছিলেন প্রেসিডেন্ট আবুল হোসেন, জেনারেল সেক্রেটারী কামাল হোসেন , ভাইস প্রেসিডেন্ট বদরুজ্জামান, এসিস্টেন্ট জেনারেল সেক্রেটারী আসাদুজ্জামান খাঁন, এসিস্টেন্ট অর্গেনাইজিং সেক্রেটারী শহিদুল্লাহ, স্পোর্ট সেক্রেটারী সালমা পারভীন, তফাজ্জল হোসেন, সদস্য হাবিবাহ ও রেজাউর রহমান প্রমুখ। টাওয়ার হ্যামলেটস কেয়ারার্স এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট আবুল হোসেন এব্যাপারে জানান,মেয়র জন বিগস কেয়ারারদের দাবীর ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক, তারই নির্দেশনায় এই অগ্রগতি বৈঠক। কেয়ারার্স এসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দরা অত্যন্ত আশাবাদী আগামী ত্রি-পক্ষীয় বৈঠকের পর লগ ইন ও লগ আউট সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান হবে বলে তারা আশাবাদী।


সাম্প্রতিক খবর

সমরখন্দের সৌন্দর্যে বিমোহিত ব্রিটিশ বাংলাদেশী সাংবাদিকরা

photo তূর্কি মেয়ের একটি তিলের বিনিময়ে মহাকবি হাফিজ যে দুই নগরী দিতে চেয়েছিলেন, তার একটি সমরখন্দের সৌন্দর্য আর স্থাপত্যশিল্প দেখে বিমোহিত হয়েছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশী সাংবাদিকরা। বর্তমানে উজবেকিস্থান সফররত ব্রিটিশ বাংলাদেশী সাংবাদিকরা বুধবার সারাদিন সমরখন্দ ও তার আশেপাশের এলাকা পরিদর্শন করেন। সাপ্তাহিক জনমত এর প্রধান সম্পাদক ও লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সৈয়দ

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment